বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
Logo বেলাবতে হাজী আলী আকবর আইডিয়াল স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান Logo চট্টগ্রাম চকবাজার থানা এলাকায় চাঁদাবাজির মহোৎসবের নেপথ্যে নায়ক থানার অবৈধ ক্যাশিয়ার। Logo ঝিনাইগাতীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত Logo নান্দনিক সংস্কৃতি বিকাশের জন্যে মাতৃভাষার চর্চা বাড়াতে হবে। Logo অমর একুশের বই মেলায় শাবানা ইসলাম বন্যার অপূর্বা Logo শেরপুরে অপহরণ মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার Logo রাজশাহীর বাঘায় সাংবাদিক কে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন থানায় অভিযোগ। Logo ইপিজেড থানা দ্বি-বার্ষিক পরিদর্শনে, (অতিরিক্ত আইজিপি) কৃষ্ণপদ রায়, Logo মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে ‘স্বপ্নসিঁড়ি পাঠাগার ‘এর উদ্যোগে গুণীজন সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা Logo ভাষা দিবসে শীতবস্ত্র বিতরণ
বিজ্ঞাপন
আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ।  যোগাযোগঃ 01977306839

বরিশালে বাড়ছে যানজট,কমছেনা ভোগান্তি

Reporter Name / ৬৬০ Time View
Update : শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ

 বরিশাল নগরীজুড়ে যানজট প্রকট আকার ধারণ করেছে। একদিকে ভোগান্তি ও অন্যদিকে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে মানুষ। অপ্রতিরোধ্য এই যানজটের কবলে পড়ে স্বাভাবিক জীবনযাত্রাও ব্যহত হচ্ছে। নগরীজুড়ে ছোট-বড় যানবাহনের আধিক্যের পাশাপাশি সড়ক অপ্রশস্ত এর মুল কারন হিসেবে দায়ী করছেন সচেতন মহল। সড়ক ব্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা ফেরাতে ট্রাফিক বিভাগ কাজ করলেও তাতে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছে এসকল যানবাহনের আধিক্য। একদিকে সড়ক প্রশস্ত নয় অন্যদিকে নগরীতে নেই পার্কিং স্পটও। এতে যানবাহন নির্দিস্ট স্থানে পার্কিং এর বিপরীতে সড়কের পার্শ্বে পার্কিং করা হচ্ছে। নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ স্থানে এই অবৈধ পার্কিংয়েও বাড়ছে যানজট। সড়কের মাঝে হঠাত যত্রতত্র গাড়ি থামিয়ে যাত্রী ওঠানামা করা, হঠাৎ ব্রেক কষে গাড়ি ঘোরানো এবং ইজিবাইক, মাহেন্দ্র, অটোরিকশার ভিড়ে যানজট আরও প্রকট আকার ধারণ করছে। এদিকে এসব যানবাহনের অধিকাংশই চালকরা অদক্ষ। একদিকে এতে যাত্রী পরিবহন যেমন অবৈধ তেমনি সড়কে চলার ক্ষেত্রেও নেই অধিকাংশ যানবাহনের অনুমতি। নগরীজুড়ে অবৈধ হলুদ অটোসহ আলফা-মাহিন্দ্রার এই আধিক্যে অহরহ দুর্ঘটনাও ঘটছে। বরিশাল নগরীর রুপাতলী, চৌমাথা , নথুল্লাবাদ ,  প্রাণ কেন্দ্র সদর রোড, নতুন বাজার ও বটতলাসহ বেশ কিছু গুরুত্বপুর্ণ স্পটে যানজটের মাত্রা তীব্র লক্ষ্য করা যায়। তিনি চাকার যানবাহনই মুলত তীব্র যানজটের জন্য দায়ী। এসব যানবাহনের দাপটে নগরীর ঐসকল পয়েন্টে বিভিন্ন সময় যানজট লেগেই রয়েছে। এছাড়া সঠিক তদারকি ব্যবস্থার অভাবেও লাইসেন্স বিহীন গাড়ির সংখ্যা বাড়ছে। যদিও সিটি কর্পোরেশন সম্প্রতি ৫ হাজারের মত হলুদ অটোর লাইসেন্স দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এতে এসব যানবাহনের আধিক্য একদিকে যেমন কমবে তেমনি যানজট কিছুটা হলেও কমে আসবে। এদিকে যানজট নিয়ন্ত্রণে সড়ক প্রশস্তেরও দাবী জানিয়েছে সচেতন মহল। প্রশস্থতা নগরীর অন্য যেকোনো রাস্তার চেয়ে সরু। আর এ সরু রাস্তার মধ্যেই কাকলির মোড় থেকে বিবির পুকুর পাড় পর্যন্ত সড়কের মাঝ বরাবর ডাইভারশন (সড়ক বিভাজন) রয়েছে। বিভিন্ন দিক থেকে আসা চলন্ত যানবাহন ও অযথা পার্কিং করে রাখা গাড়িগুলোর সম্মিলন যানজটের সৃষ্টি করছে। রয়েছে কাঠপট্টি, ফলপট্টি,বাংলাবাজার, বটতলার মোড়ও । রাস্তার পাশে ভ্রাম্যমাণ দোকান ও অটোরিকশার কারনে যানজট লেগেই থাকে।  এছাড়া নগরীর নতুনবাজার ফাড়ির মোড় থেকে বিএম কলেজ পর্যন্ত কাঁচাবাজার, মাছের বাজার, মুদি বাজার ও অসংখ্য রেস্টুরেন্টের সমাহার। এর ওপর চলার পথ তুলনামূলক সরু। নগরীর সদর রোড থেকে জেলখানার মোড় হয়ে নথুল্লাবাদ ও বিএম কলেজ পর্যন্ত যাবার প্রধান সড়কও এটি।   যে কারণে তিন চাকার যানের আধিক্যও এ সড়কে সবচেয়ে বেশি। এছাড়া পার্কিংয়ের জায়গা না থাকায় রাস্তার পাশেই ব্যক্তিগত গাড়ি রেখে বাজার করতে হয় সেখানকার নাগরিকদের। এতেও বৃদ্ধি পাচ্ছে যানজট। নগরীর রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডে যাওয়ার পথে ঘণ্টার পর ঘন্টা যানজটে আটকে থাকতে হয় সাগরদি বাজার এলাকায়। এ এলাকার সড়কে বিশৃঙ্খলা দিন দিন বেড়েই চলছে, যা টার্মিনাল এলাকার চারদিকে তাকালেই পরিষ্কার। একই চিত্র কেন্দ্রীয় নথুল্লাবাদ বাস টার্মিনাল এলাকার। দীর্ঘ যানজট ঠেলে নথুল্লাবাদ টার্মিনাল এলাকায় পৌঁছলে দেখা যায় তিনটি সড়কের কেন্দ্রস্থলজুড়ে ভয়াবহ যানজট। ইজিবাইক, মাহেন্দ্র এবং ঢাকা-বরিশাল এবং দক্ষিণাঞ্চলের পাঁচ জেলার পরিবহন ও প্রাইভেট কারসহ ব্যক্তিগত বিভিন্ন গাড়িতে একাকার টার্মিনাল এলাকা। দেখে মনে হবে আগে যাবার কোন প্রতিযোগিতা চলছে। ঢাকা বরিশাল রুটের এক বাসচালক জানান, বরিশালের সড়কগুলোতে অটোরিকশা, ইজিবাইক ও মাহেন্দ্র এতবেশি বেড়েছে, তাদের জন্য রাস্তায় গাড়ি চালানো যায় না। অন্যদিকে এক মাহেন্দ্রচালক বলেন, পদ্মা সেতুর কারণে সড়কে বড় গাড়ির সংখ্যা অনেক বেড়েছে। সে তুলনায় রাস্তা বাড়েনি। যানজটের জন্য যে শুধু আমরাই দায়ী তা নয় সবাই কমবেশি দায়ী। এ সড়ক দ্রুত ফোর লেন হওয়া জরুরি। এদিকে যানজট নিয়ন্ত্রনে সিটি কর্পোরেশনের মুল সড়ক প্রশস্তে উদ্যোগ নিয়ে কর্তৃপক্ষ। শীগ্রই তা বাস্তবায়িত হলে যানজটের মাত্রা কমবে বলে ধারণা সাধারণ মানুষের । এ বিষয়ে বরিশাল মহানগর পুলিশের ট্রাফিক জোনের উপ-কমিশনার তানভীর আরাফাত বলেন, যানজট নিয়ন্ত্রন করা যাচ্ছেনা এর মুল কারণ আইন না মানা, অবৈধ যানবাহন ও  সড়কের স্বল্পতা। এরপর মুলত নথুল্লাবাদ ও রুপাতলীতে সড়কের ওপর দুইটি বাসস্ট্যান্ড । এছাড়া সদর রোডে কোন পার্কিংয়ের ব্যবস্থা নেই। গাড়িগুলো রাস্তার ওপরেই পার্কিং করা হচ্ছে। নিয়ন্ত্রণে যেকোন স্ট্যান্ড অন্যত্র সরাতে হবে। বাইপাস সড়ক করতে হবে। সদর রোড এলাকায় পার্কিং এর ব্যবস্থা করতে হবে। হলুদ অটোর বিষয়ে মেয়র মহোদয় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কিছু লাইসেন্স দিবেন । এগুলোকে অর্ধেকে কমিয়ে আনতে হবে। এছাড়া অবৈধ গাড়ি নিয়মিত আটক ও জরিমানা করা হচ্ছে। এছাড়া সংশ্লিষ্টদের সম্মিলিত সমন্বয়ের মাধ্যমে যানজট নিয়ন্ত্রনে আসবে বলে জানান তিনি।   এ বিষয়ে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফারুক আহমেদ জানান, যানযট নিয়ন্ত্রণে শীগ্রই সিটি কর্পোরেশনের মুল সড়ক প্রশস্ত করা হবে। ইজিবাইক গুলোর লাইসেন্স দেয়ার পর পার্কিং স্পটও করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Developed by : BD IT HOST