বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
Logo মহেশপুর ইউনিয়ন নবগঠিত ছাত্রলীগের উদ্যোগে চা আড্ডা ও আলোচনা সভা Logo দৈনিক অপরাধ অনুসন্ধান ৫ম বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা সভা Logo নড়াইলে বিএমএসএস’র পিঠা উৎসব ও সাংবাদিকদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত Logo এইচএসসিতে সাংবাদিক কন্যা ঐশীর সাফল্য অর্জন । Logo নেত্রকোণার কলমাকান্দায় পরীক্ষায় কাংখিত ফলাফল না পাওয়ায় কীটনাশক খেয়ে আত্নহত্যা করে শিক্ষার্থী Logo শেরপুরে কুতথ্য প্রতিরোধে কর্মশালা অনুষ্ঠিত Logo শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে মিথ্যা অভিযোগে ৫মামলা Logo জনগনের,নয়নের মণি একজন মানবিক ও সফল ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ জামাল Logo নরসিংদীর শাদমান সরকার সৌমিক উচ্চ মাধ্যমিকে জিপিএ ৫ পেয়েছে Logo এবারের বইমেলায় নিউইয়র্কের লেখিক সুমা রহমানের দুটি বই প্রকাশিত
বিজ্ঞাপন
আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন ।  যোগাযোগঃ 01977306839

বিরামপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

Reporter Name / ২৩৭ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২, ২:১৭ পূর্বাহ্ণ

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি-দিনাজপুরের বিরামপুরে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষ্যে সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় সঙ্গীতের সাথে কালো পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ শেষে বিরামপুর পৌরসভা কার্যালয় চত্বর থেকে একটি শোক র‌্যালী বের হয়ে পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বিরামপুর সরকারি কলেজ চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি শিবেশ কুমার কুন্ডুর সভাপতিত্বে এবং যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক গোলজার হোসেনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন,প্রধান অতিথি সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য ও দিনাজপুর-৬ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক (এমপি)।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি নাড়ু গোপাল কুন্ডু,সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল আলম রাজু, পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আককাস আলী, বীরমুক্তিযোদ্বা হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার, বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেজবাউল ইসলাম মন্ডল, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি রহমত আলী, দিলীপ কুমার কুন্ডু, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক মাষ্টার, বিরামপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন, বিরামপুর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ শিশির কুমার সরকার,থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত, উপাধ্যক্ষ মেসবাউল হক, প্যানেল মেয়র আব্দুল আজাদ মন্ডল (বকুল),দপ্তর সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন,প্রেসক্লাবের সভাপতি আকরাম হোসেন,সাধারণ সম্পাদক সহকারি অধ্যাপক মশিহুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এসময় উপজেলার সাত ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদ্বয়, বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাগণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, সুধীজন, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীগনসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

“পৌর মেয়র অধ্যক্ষ আক্কাস আলী বলেন, এই দিনে কিছু বিপদগামী ঘাতকেরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারান বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজী জামালসহ আরো অনেকেই। শুধু প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে বর্তমান সফল রাষ্ট্রনায়ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।”

“বিশেষ অতিথি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ বিপ্লবী সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল আলম রাজু বলেন, ১৯৭৫ সালের এই দিনে সেনাবাহিনীর কিছুসংখ্যক বিপথগামী সদস্য বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিল। এর মধ্য দিয়ে বাঙালির ইতিহাসে এক কালিমালিপ্ত অধ্যায় সংযোজিত হয়েছিল। সেদিন ঘাতকেরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি। তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারান বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজী জামাল।”

“এছাড়া বঙ্গবন্ধুর ভাই শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, আরিফ, বেবি ও সুকান্ত, আবদুল নাঈম খান রিন্টু, বঙ্গবন্ধুর ভাগনে যুবনেতা শেখ ফজলুল হক মণি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মণিকেও হত্যা করা হয়। বঙ্গবন্ধুর জীবন বাঁচাতে ছুটে আসা কর্নেল জামিলকেও সেদিন ঘাতকদের হাতে প্রাণ হারাতে হয়েছিল। তবে সেই সময় বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে অবস্থান করায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে বর্তমানের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা।”

প্রধান অতিথি দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপি বলেন, ১৯৭৫ সালের বৃষ্টিঝরা শ্রাবণের এই দিনে রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর বাসভবনে বৃষ্টির ধারা নয় বয়েছিল রক্তের স্রোত। কিন্তু, বঙ্গবন্ধুর অবিনশ্বর চেতনা ও আদর্শ ছিল মৃত্যুঞ্জয়ী। বঙ্গবন্ধু একটি ইতিহাস; বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ যেন রেললাইন বহে সমান্তরাল। বঙ্গবন্ধু ‘রাজনীতির কবি’ না হলে বাংলাদেশ নামক লাল-সবুজ কবিতাটি তিনি বুনতেন না। ঘাতকের সাধ্য ছিল না ইতিহাসের সেই মহানায়কের অস্তিত্বকে বিনাশ করে। তাই শোককে শক্তিতে পরিণত করে ক্রমেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার হাত ধরেই এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

অপরদিকে বিরামপুর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মন্ডলের নেতৃত্বে আ’লীগের একাংশ তার নিজ চাতালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল মাধ্যমে জাতীয় শোক দিবস পালন করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Design & Developed by : BD IT HOST